Breaking News
Home / Exclucive / ভিডিওটি দেখুন নিজের চোখকে বিশ্বাস হবেনা ! যাদের হার্ট দূর্বল তারা দেখবেন না ! (ভিডিওসহ)

ভিডিওটি দেখুন নিজের চোখকে বিশ্বাস হবেনা ! যাদের হার্ট দূর্বল তারা দেখবেন না ! (ভিডিওসহ)

ভিডিওটি দেখুন নিজের চোখকে বিশ্বাস হবেনা ! যাদের হার্ট দূর্বল তারা দেখবেন না ! (ভিডিওসহ) ভিডিওটি দেখুন নিজের চোখকে বিশ্বাস হবেনা ! যাদের হার্ট দূর্বল তারা দেখবেন না ! (ভিডিওসহ) ভিডিওটি দেখুন নিজের চোখকে বিশ্বাস হবেনা ! যাদের হার্ট দূর্বল তারা দেখবেন না ! (ভিডিওসহ)

বি: দ্র : ই্উটিউব থেকে প্রকাশিত সকল ভিডিওর দায় সম্পুর্ন ই্উটিউব চ্যানেল এর ।

এর সাথে আমরা কোন ভাবে সংশ্লিষ্ট নয় এবং আমাদের পেইজ কোন প্রকার দায় নিবেনা।
ভিডিওটির উপর কারও আপত্তি থাকলে তা অপসারন করা হবে। প্রতিদিন ঘটে যাওয়া নানা রকম ঘটনা আপনাদের মাঝে তুলে ধরা এবং সামাজিক সচেতনতা আমাদের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য ।

ভিডিওটি দেখুন নিজের চোখকে বিশ্বাস হবেনা ! যাদের হার্ট দূর্বল তারা দেখবেন না ! (ভিডিওসহ)

আরোও পড়ুন-

ট্রেনের ধাক্কায় প্রাণ গেল ৬ হাতির

ভারতের রেল দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছে প্রাপ্তবয়স্ত ৫ টি হাতি ও ১ শাবক। গতকাল রাতে আসামে আসামের সোনিতপুর জেলার বালিপারায় ঘটে দুর্ঘটনা।

রেল কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম জানায়, রাত ১টার দিকে হাতিগুলো রেললাইন পার হচ্ছিল। সেই সময় গোয়াহাটি-নাহারলেগুন এক্সপ্রেস ট্রেনটি চলে আসলে বড় ধরনের সংঘর্ষ হয় এতে ৫ টি হাতি ও ১টি শাবক প্রাণ হারায়।

খবর ছড়িয়ে পরলে স্থানীয়রা হাতিদের মৃতদেহের চারদিকে ভীড় করেন। আসলে বনের প্রাণী এবং মানুষের মধ্যে এমন সাংঘর্ষিক পরিস্থিতি আসামে বন্যজীবন এবং তার প্রাণীদের অস্তিত্বকে হুমকির মুখে ফেলে দিচ্ছে।

এমনিতেই সেখানে বন উজাড় করে অনেকগুলো গ্রাম গড়ে তোলা হয়েছে। এই বসতির কারণে এখানকার বিশেষকরে হাতিরা তাদের প্রাকৃতিক বসতি খুইয়েছে।

এক পরিসংখ্যানের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়, ২০১৩ সাল থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে আসামে ১৪০টি হাতির অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে।

সোনিতপুরের বর্তমান অবস্থা নিয়ে ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ডলাইফ ফান্ডের এক কর্মকর্তা জানান, এখানকার বনাঞ্চলের ৭০ শতাংশ ইতিমধ্যে শেষ হয়ে গেছে। অনেক বুনো হাতিই গ্রামে চলে আসে। এগুলো আসলে তাদেরই জায়গা ছিল।

স্থানীয়রা বন উজাড় করে বসতি ভাগাভাগি করলেও হাতিদের প্রতি তাদের ভালোবাসা রয়েছে। আসামের এই এশিয়ান হাতিগুলোর অস্তিত্ব ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে বলে ঘোষণা দিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব ন্যাচার কবা আইইউসিএন। ২০১১ সালেও এখানে ৫৬২০টি হাতি ছিল বলে এক পরিসংখ্যানে উল্লেখ করা হয়।