Breaking News
Home / Entertainment / ভিডিও দেখে মাথা নস্ট হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় !! শুধুমাত্র বড়দের জন্য ছোটরা ঢুকবেন না

ভিডিও দেখে মাথা নস্ট হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় !! শুধুমাত্র বড়দের জন্য ছোটরা ঢুকবেন না

প্রতিদিন আমাদের সমাজে কত না নানান ঘটনা ঘটে জায় ঘটে যাওয়া সব গুলোর খবর কি আমরা জানতে পারি ? আমরা আপনাদের সামনে নানা রকম কিছু তুলে ধরবো।

পরবর্তী আপডেট পেতে পেজে লাইক, কমেন্ট এবং শেয়ার করে আমাদের সাথেই থাকবেন।

বি: দ্র : ই্উটিউব থেকে প্রকাশিত ভিডিওর দায় সম্পুর্ন ই্উটিউব চ্যানেল ওনাদের সেখানে এই সংবাদ কোণভাবে ভাবে সংশ্লিস্ট নয় এবং দায় নিবেনা । ভিডিওটির উপর কারও আপত্তি থাকলে তা অপসারন করা হবে। আমাদের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য শুধু সামাজিক সচেতনা।

ভিডিও দেখতে নিচে ক্লিক করুন

করছেন তো রোজ! এবার থেকে সকালে এই ১০ বদঅভ্যাস এড়ান
রোজ সকালে আমরা ঘুম থেকে উঠি নতুন আশা, নতুন উদ্যম নিয়ে। প্রত্যেকটা দিন আমাদের কাছে একটা নতুন শুরু। তাই সকালটা আমাদের সবার কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। খেয়াল রাখবেন নিজেদেরই ছোটখাটো ভুলে একটা সুন্দর সকাল যেন নষ্ট না হয়ে যায়।

জানেন কি, আমরা প্রায় সবাই রোজ সকালে নিজেদের জীবনে কয়েকটা বাস্তুদোষ ঘটিয়ে ফেলি। তার অশুভ প্রভাব আমাদের জীবনে পড়ে। খেয়াল রাখুন অজান্তে করা এই সব বাস্তুদোষের। জেনে নিন সমাধান।

১. দিনের শুরু কখনোই মোবাইলে মেসেজ চেক করে করবেন না। আমরা অনেকেই ঘুম থেকে উঠে প্রথমেই মোবাইলে মেসেজ চেক করি। কিন্তু একটা খারাপ জোক, একটা নেগেটিভ কমেন্ট আমাদের গোটা দিনটা শেষ করে দিতে পারে। দিনের শুরুতে কিছুটা সময় মেডিটেশন করুন। নিজের সঙ্গে একটু কথা বলুন।

২. যে পোশাক পরতে ভালো লাগে না, তা জোর করে পরার কোনও প্রয়োজন নেই। অপছন্দের পোশাক পরলে সারাদিনটাই খুঁতখুঁতে লাগে। সেটাই পরুন, যেটা আপনার পরতে ভালো লাগে।

৩. ফাটা মগে কখনোই কফি খাবেন না। যতই দামি হোক না কেন, চায়ের কাপ বা কফির মগে ক্র্যাক ধরলে তা তখনই ফেলে দিন।

৪. আপনার ব্যাগে থাকা প্রত্যেকটি জিনিসেই কিছু পরিমাণ ধুলো থাকে। এমনকি ছয় মাস ধরে আপনার ব্যাগে পড়ে থাকা একটা সেফটিপিনেও ধুলো জমে থাকে। তাই অপ্রয়োজনীয় জিনিস ব্যগ থেকে ফেলুন। তাহলেই পজিটিভ এনার্জি ঠিকমতো কাজ করতে পারবে।

৫. বাড়ির বাইরে যেখানেই যান না কেন, সঙ্গে অবশ্যই সব সময় জলের বোতল রাখবেন। প্রত্যেকটি জিনিসেরই নিজস্ব কিছু গুনাগুণ থাকে। সঙ্গে জল থাকলে তা আপনাকে ঠাণ্ড ও শান্ত রাখতে সাহায্য করবে।

৬. সকালে যতই তাড়াহুড়ো থাক না কেন, খালি পেটে কখনোই বাড়ি থেকে বেরোবেন না। ভাবুনতো গাড়িতে পেট্রোল না থাকলে তা কি চলবে? তেমনই খালি পেটে কোনও কাজই আপনি ভালো ভাবে করতে পারবেন না।

৭. কোনও দিন সকালে আপনার সন্তান বা বাড়ির অন্য কোনও বাচ্চাকে বকাবকি বা মারধর করে ঘুম থেকে তুলবেন না। ভাবুনতো আপনাকে যদি গান পয়েন্টে অফিস যেতে হয়? নিজেকে বাচ্চার জায়গায় বসিয়ে দেখুন। এর ফলে বাচ্চার থেকে বেরনো নেগেটিভ এনার্জি আপনার দিনটাই শেষ করে দেবে।

৮. গাড়িতে যদি ধুলো-ময়লা থাকে, তা শুধু আপনার ইমেজ খারাপ করবে না, পাশাপাশি বাস্তুমতেও নোংরা গাড়ি চালানো অত্যন্ত অশুভ। ফ্রন্ট ও সাইড গ্লাসের ধুলো পরিস্কার করতে ৩ মিনিটের বেশি সময় লাগবে না।

৯. গতকাল অফিসে ঝামেলা হয়েছে? তার রেশ টেনে আজও গোমড়া মুখে অফিসে ঢুকবেন না। কাল যা হয়েছে, ভুলে যান। প্রতিদিন একটা নতুন শুরু। কাজের ক্ষেত্রে নিজের পেশাদারিত্ব বজায় রাখুন।

১০. সকাল বেলা প্লেটে খাবার ফেলে উঠে যাওয়া বাস্তুমতে অত্যন্ত অশুভ। মনে রাখুন আমাদের দেশে বেশিরভাগ মানুষই প্রতিদিন পেট ভরে খেতে পান না। খাবার নষ্ট করার আগে তাঁদের কথা মনে করুন।